থানচিতে বমপাড়ার জনগণের মাঝে সেনাবাহিনীর মেডিক্যাল ক্যাম্পেইন - Southeast Asia Journal

থানচিতে বমপাড়ার জনগণের মাঝে সেনাবাহিনীর মেডিক্যাল ক্যাম্পেইন

“এখান থেকে শেয়ার করতে পারেন”

Loading

নিউজ ডেস্ক

সেনা সহায়তায় দীর্ঘ আট মাস পর বান্দরবানের থানচি সদর ইউনিয়নের প্রাতা বমপাড়ার ১১টি পরিবারের ৪৯ জন সদস্য নিজ বাড়িতে ফিরেছে। গত শনিবার দুপুরে সদর ইউনিয়নের ৯ নম্বর ওয়ার্ড প্রাতা বমপাড়ায় প্রবেশ করে তারা।

চলতি বছরে মার্চ মাসে পাহাড়ের সশস্ত্র সংগঠন কুকি চিন ন্যাশনাল ফ্রন্ট (কেএনএফ) কর্তৃক বাকলাই পাড়ায় আক্রমণ চালালে স্থানীয়দের মধ্যে আতঙ্ক তৈরি হয়। ওই সময় নিরাপদে আশ্রয় নিতে মোট ২৮টি পরিবার বিভিন্ন স্থানে নিরাপদ ভাবে আশ্রয় গ্রহণ করে।

রবিবার প্রাতাপাড়ায় বর্তমানে বসবাসরত সদস্যদের পুনর্বাসনের জন্য বাংলাদেশ সেনাবাহিনীর সহযোগিতায় ১৬ ইস্টবেঙ্গল রেজিমেন্টের তত্ত্বাবধানে বাকলাইপাড়া সাব জোনের পক্ষ থেকে একটি মেডিকেল ক্যাম্পেইনের ব্যবস্থা করা হয়।

মেডিক্যাল ক্যাম্পেইনের মাধ্যমে এলাকার সাধারণ জনগণের মধ্যে মেডিকেল সহায়তা প্রদান করা হয়েছে।

এতে প্রাতাপাড়া ও বাকলাই পাড়ার মোট ২৯ টি পরিবারের প্রায় একশরও অধিক সাধারণ জনগণের মাঝে বিশেষজ্ঞ ডাক্তারের পরামর্শ ও ওষুধ সেবা প্রদান করা হয়।
একই সাথে পাড়ায় বসবাসরত জনগণের জীবন যাপনের মান উন্নয়নের জন্য একটি ২ হাজার লিটারের পানির ট্যাংকি, প্রত্যেকটি পরিবারের জন্য শীতবস্ত্র হিসেবে কম্বল এবং তাদের ধর্মীয় প্রতিষ্ঠানের জন্য একটি সোলার প্যানেল সিস্টেম সরবরাহ করা হয়েছে।

এছাড়া প্রাতাপাড়ায় অবস্থিত ১২টি পরিবারের পঞ্চাশ জন সদস্যের মাঝে দুপুর বেলার খাবার বাকলাই পাড়া সেনা ক্যাম্প থেকে পরিবেশন করা হয়। বাকলাই পাড়া সেনা ক্যাম্পের ক্যাম্প কমান্ডার বলেন, বাংলাদেশ সেনাবাহিনী সব সময় সাধারণ মানুষের পাশে থেকে তাদের এই সহায়তা অব্যাহত রাখবে।

উল্লেখ্য, চলতি বছরে মার্চ মাসে পাহাড়ের সশস্ত্র সংগঠন কুকি চিন ন্যাশনাল ফ্রন্ট (কেএনএফ) কর্তৃক বাকলাই পাড়া সেনা ক্যাম্পে আক্রমণ চালায়। পরে সেনাবাহিনীও কেএনএফের আস্তানায় পাল্টা অভিযান চালালে গোলাগুলিতে সেখানকার স্থানীয়দের মধ্যে আতঙ্ক তৈরি হয়। ওই সময় নিরাপদে আশ্রয় নিতে মোট ২৮টি পরিবার বিভিন্ন স্থানে পালিয়ে যায়।