দেশে ফিরলেন ভারতে আটকে পড়া ১২ বাংলাদেশি - Southeast Asia Journal

দেশে ফিরলেন ভারতে আটকে পড়া ১২ বাংলাদেশি

দেশে ফিরলেন ভারতে আটকে পড়া ১২ বাংলাদেশি
“এখান থেকে শেয়ার করতে পারেন”

Loading

নিউজ ডেস্ক

বাংলাদেশ থেকে ভারতে গিয়ে আটকে পড়া ১২ বাংলাদেশি গতকাল মঙ্গলবার দেশে ফিরেছেন। ভারতের ত্রিপুরা রাজ্যের আগরতলা থেকে বাংলাদেশের আখাউড়া সীমান্ত চেকপোস্ট দিয়ে মঙ্গলবার সকালে তারা বাংলাদেশে প্রবেশ করেন। আগরতলার বাংলাদেশ সহকারী হাইকমিশনের মাধ্যমে তাদের পরিবারের কাছে হস্তান্তর করা হয়।

সাজা শেষে তাদের মধ্যে একজন আগরতলার জওহর লাল নেহরু বালিকা নিবাসে এবং অন্যরা নরসিংগড় ডিটেনশন সেন্টারে অবস্থান করছিলেন।

পরিবার ও সহকারী হাইকমিশনের কর্মকর্তারা জানিয়েছেন, এই ১২ বাংলাদেশি ভারতের ত্রিপুরা রাজ্যে বিভিন্ন সময়ে আটক হয়েছিলেন। এরপর সে দেশের আদালতের রায়ে তারা সাজা ভোগ করেন। সাজা শেষে তাদের নাগরিকত্ব যাচাই করা হয়। এরপর বাংলাদেশের স্বরাষ্ট্র ও পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের নির্দেশনা অনুযায়ী ভারতে যোগাযোগ করে তাদের দেশে ফিরিয়ে আনার জন্য সে দেশের সরকারের অনাপত্তি সংগ্রহ করে আগরতলার সহকারী হাইকমিশন।

আখাউড়া স্থলবন্দরে তাদের গ্রহণ করার সময় ভারতের ত্রিপুরায় নিযুক্ত বাংলাদেশের সহকারী হাইকমিশনার আরিফ মোহাম্মদ, বাংলাদেশ সহকারী হাইকমিশনের প্রথম সচিব মো. আল আমীন, আখাউড়া উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা রাবেয়া আক্তার, সহকারী কমিশনার (ভূমি) প্রশান্ত চক্রবর্তী, ওসি (ইমিগ্রেশন) হাসান আহমেদ ভূঁইয়া এবং বেসরকারি সংস্থা ব্র্যাক মাইগ্রেশন প্রোগ্রামের কর্মকর্তারা উপস্থিত ছিলেন।

  • অন্যান্য খবর জানতে এখানে ক্লিক করুন।
  • ফেসবুকে আমাদের ফলো দিয়ে সর্বশেষ সংবাদের সাথে থাকুন।

দেশে ফেরত আসা বাংলাদেশি নাগরিকদের নিজ নিজ আত্মীয়স্বজনের কাছে হস্তান্তরের সময় ব্র্যাক মাইগ্রেশন প্রোগ্রামের পক্ষ থেকে পাচারের শিকার ব্যক্তিদের জরুরি সহায়তা হিসেবে খাবার, জরুরি কাউন্সেলিং সেবা ও অর্থ সহায়তা দেওয়া হয়।

ত্রিপুরায় বাংলাদেশের সহকারী হাইকমিশনার আরিফ মোহাম্মদ সাংবাদিকদের বলেন, ‘আজ (গতকাল) আমাদের জন্য খুবই আনন্দের দিন যে আমরা ১২ বাংলাদেশিকে প্রত্যাবাসন করতে পারছি। ভবিষ্যতে এ ধরনের মানব পাচার ও অবৈধ অনুপ্রবেশ ঠেকাতে জনসচেতনতা আরও জোরদার করতে হবে।’

ফেরত আসা ব্যক্তিদের মধ্যে দুজনের পরিবারের সদস্যরা জানান, প্রায় দেড় বছর আগে দালালের মাধ্যমে তারা ডাক্তার দেখানোর উদ্দেশ্যে ভারতে যান। বৈধ কাগজপত্র না থাকায় সেখানে আইনশৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনীর কাছে ধরা পড়েন এবং সাজা ভোগ করেন।