কেএনএফ প্রতিহতের দাবিতে উত্তাল বান্দরবানের রুমা, মুখোমুখি পাড়াবাসী ও কেএনএফ - Southeast Asia Journal

কেএনএফ প্রতিহতের দাবিতে উত্তাল বান্দরবানের রুমা, মুখোমুখি পাড়াবাসী ও কেএনএফ

কেএনএফ প্রতিহতের দাবিতে উত্তাল বান্দরবানের রুমা, মুখোমুখি পাড়াবাসী ও কেএনএফ
“এখান থেকে শেয়ার করতে পারেন”

Loading

নিউজ ডেস্ক

অব্যাহত চাঁদাবাজি, অপহরণ, গুলিসহ এক নিরীহ মারমা যুবককে গুলি করে আহত করার প্রতিবাদে মানববন্ধন, মিছিল ও প্রতিবাদে মুখর হয়ে হঠেছে বান্দরবানের রুমা উপজেলা। গতকাল ১৩ ফেব্রুয়ারি মঙ্গলবার মানববন্ধন ও মিছিল করার পর আজও (বুধবার) একই দাবিতে উত্তাল ছিলো রুমার রাজপথ।

সকাল ১০টায় রুমা উপজেলা সদরে কেএনএফ কর্তৃক নির্যাতন, নিপীড়ন, চাঁদাবাজি, অপহরন ও রিঝুকপাড়াবাসী মারমা যুবক উহ্লাচিং মারমাকে গুলির প্রতিবাদে মানববন্ধন করে সচেতন নাগরিক সমাজ।

মানববন্ধনে অংশগ্রহনের জন্য সকাল থেকে বিভিন্ন পাড়া তেকে মারমা সম্প্রদায়ের ব্যক্তিবর্গ রুমা বাজারে জড়ো হতে থাকে। মানববন্ধনে নেতৃত্ব দেন উপজেলা পরিষদ চেয়ারম্যান উহ্লাচিং মারমা।

এসময় মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান নুম্রাউ মারমা, ২ নং রুমা সদর ইউনিয়ন পরিষদ চেয়ারম্যান শৈমং মারমা শৈবং, পাইন্দু ইউপি চেয়ারম্যান উহ্লামং মারমা, মারমা ওয়েলফেয়ারের সভাপতি উথোয়াইচিং মারমা, উপজেলা ছাত্রলীগ সভাপতি অংচোয়াও মারমাসহ মারমা সম্প্রদায়ের লোকজন অংশ নেন।

কেএনএফ প্রতিহতের দাবিতে উত্তাল বান্দরবানের রুমা, মুখোমুখি পাড়াবাসী ও কেএনএফ

বক্তারা বলেন, রুমায় যে গ্রামে যায় সে পাড়াতে শোনা যায় শুধু কেএনএফ আর কেএনএফ। কেএনএফ এত মারমা জাতিকে হয়রানি ও অত্যাচার চালাচ্ছে সেটি অবাক করার বিষয়। তাছাড়া গ্রামের পাশে শুধু শোনা যায় গোলাগুলির শব্দ। তাই আগের মতো দু’মুঠো ভাত খেয়ে ঘরে বসে থাকার সময় নাই। আজ থেকে সবাই মিলে রুখে দাঁড়াতে হবে কেএনএফের বিরুদ্ধে।

বক্তারা আরো বলেন, রুমা উপজেলাতে আগে শান্তি শৃঙ্খলা বজায় রেখে জাতি, ধর্ম, বর্ণ নির্বিশেষে আমরা সকলে শান্তিভাবে বসবাস করে আসছি। তবে কয়েকবছর ধরে একটি নতুন সংগঠন কেএনএফ সৃষ্টি হওয়ার পর থেকে আর কোন পাবর্ত্য অঞ্চলে শান্তি ফিরে আসতে সুযোগ দেয়নি। আমরা চাই সকল জাতিকে নিয়ে বসবাস করতে। কোন জাতির উপর জোর জুলুম দিয়ে বসবাস করতে নয়। শান্তিপূর্ণ থাকার জন্য অনেক আগে সম্মান দিয়েছি। কিন্তু যে সম্মান দিয়েছি সে সম্মান দেওয়ার সময় আর নাই। মারমা জাতিরাও কাল থেকে দেখাব, বম থেকে যারা নেতৃত্ব দিয়ে কুকি-চীনকে সহযোগিতা দিয়েছে, তাদের বিরুদ্ধেও আমরা একশন নিব। রুমা উপজেলাকে শান্তি ফিরিয়ে আনতে কেএনএফকে কঠোরভাবে প্রতিহতের ডাক দেন সচেতন নাগরিক সমাজ।

এছাড়া মানববন্ধন থেকে আগামী ৭ দিনের ভিতর সন্ত্রাসী কর্মকান্ডে জড়িত কেএনএফ সন্ত্রাসীদের গ্রেফতারে প্রশাসনকে আল্টিমেটাম দেন। অন্যথায় নিজেরাই আইন হাতে তুলে নেয়ার হুঁশিয়ারি দেন।

কেএনএফ প্রতিহতের দাবিতে উত্তাল বান্দরবানের রুমা, মুখোমুখি পাড়াবাসী ও কেএনএফ

অন্যদিকে, একই সময়ে মানববন্ধনে অংশ নেয়া একটি অংশ রুমা বাজারের পার্শ্ববর্তী জাইঅন পাড়ায় হামলা করে বম সম্প্রদায়ের বাড়ি ও দোকানে হামলা চালিয়ে বাসার আসবাবপত্র, মোটরগাড়ি, দোকান ভাংচুর করে। এসময় জাইঅন পাড়ার কারবারির মাথা ফেটে গেলে তাকে দ্রুত উপজেলা সাস্থ্য কমপ্লেক্সে নিয়ে যাওয়া হয়।

এছাড়া, রুমা উপজেলা পরিষদের ভাইস চেয়ারম্যান থানখাম লিয়ান বমের বাড়িতেও হামলা করে উত্তেজিত জনতা। তবে সেসময় তিনি বাসায় ছিলেন না। পরবর্তীতে সেনাবাহিনী ও পুলিশ গিয়ে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রনে আনে।

সূত্র বলছে, আরেকটি গ্রুপ কেএনএফ প্রধান নাথাম বমের বাড়ি ও বমসম্প্রদায়ের বসতি ইডেনপাড়ায় হামলা চেষ্টা চালায়। তবে সেসময় কেএনএফ এর ২০-৩০ জনকে অস্ত্রসহ নাথাম বমের বাড়ির সামনে ও পাহাড়ের উপর দেখা গেলে উত্তেজিত জনতা স্থানীয় সেনা ক্যাম্পের নীচে জড়ো হয়ে কেএনএফ সন্ত্রাসীদের বিচার দাবি করে। এসময় সেনাবাহিনী, পুলিশ ও বিজিবি ঘটনাস্থলে এসে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণ করে।

কেএনএফ প্রতিহতের দাবিতে উত্তাল বান্দরবানের রুমা, মুখোমুখি পাড়াবাসী ও কেএনএফ

সূত্র আরও জানায়, বর্তমানে রুমা উপজেলাসহ আশে-পাশের এলাকাগুলোতে থমথমে পরিস্থিতি বিরাজ করছে। যে কোন সময় ভ্রাতৃঘাতি সংঘাতে জড়াতে পারে কেএনএফ ও এলাকাবাসী। তবে প্রশাসনের টহল অব্যাহত রয়েছে বলে জানা গেছে।

রুমা থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা মোঃ শাজাহান জানান, যেকোন পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রনে প্রশাসন সজাগ রয়েছে।

এর আগে, মঙ্গলবার ভোর সাড়ে ৬টার দিকে বান্দরবানের রুমা উপজেলার কোলাদিপাড়ায় একটি পাহাড়ি গ্রামে কুকি চিন ন্যাশনাল ফ্রন্ট কেএনএফ’র সশস্ত্র সদস্যদের হামলায় এক জুম চাষি গুলিবিদ্ধ হয়েছে। গুলিবিদ্ধ হয়ে আহত উহ্লাচিং (৫৪) মারমাকে সকালে উদ্ধার করে স্থানীয়রা রুমা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করে। পরে অবস্থার অবনতি হলে তাকে বান্দরবান সদর হাসপাতালে নিয়ে আসা হয়।

  • পার্বত্য চট্টগ্রামের অন্যান্য খবর জানতে এখানে ক্লিক করুন।
  • ফেসবুকে আমাদের ফলো দিয়ে সর্বশেষ সংবাদের সাথে থাকুন।