পার্বত্য এলাকা অস্থিতিশীল করছে তিন সংগঠন- স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী - Southeast Asia Journal

পার্বত্য এলাকা অস্থিতিশীল করছে তিন সংগঠন- স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী

“এখান থেকে শেয়ার করতে পারেন”

Loading

নিউজ ডেস্ক

সন্তু লারমার পার্বত্য চট্টগ্রাম জনসংহতি সমিতি (জেএসএস), ইউনাইটেড পিপলস ডেমোক্রেটিক ফ্রন্ট (ইউপিডিএফ) এবং পার্বত্য অঞ্চলের নতুন সংগঠন কুকি চিন ন্যাশনাল ফ্রন্ট-(কেএনএফ) সীমান্ত এলাকায় অস্থিতিশীল পরিবেশ সৃষ্টির চেষ্টা করছে বলে মন্তব্য করেছেন স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী আসাদুজ্জামান খান কামাল। রোববার রাজধানীর নাজিমুদ্দিন রোডের ফায়ার সার্ভিসের কার্যালয়ে অনুষ্ঠান শেষে সাংবাদিকদের প্রশ্নের জবাবে এ কথা বলেন তিনি।

এ সময় তিনি আরও বলেন, পার্বত্য এলাকায় বিশেষ অভিযান চালিয়ে জঙ্গিদের কয়েকজনকে গ্রেপ্তার এবং কয়েকজনকে শনাক্ত করা হয়েছে। তাদের আইনের আওতায় এনে জিজ্ঞাসাবাদ করে পরবর্তী সময়ে এসব বিষয় জানানো হবে

কয়েকটি পাহাড়ি সশস্ত্র গোষ্ঠী অস্থিতিশীলতা তৈরির চেষ্টা চালাচ্ছে উল্লেখ করে স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী আরও বলেন, তারা সব সময় আমাদের সীমান্ত এলাকায় একটি অস্থিতিশীল পরিবেশ সৃষ্টির চেষ্টা করছে। এদের বিরুদ্ধে আমাদের সেনাবাহিনী থেকে শুরু করে পুলিশসহ সব আইনশৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনী কার্যকর ব্যবস্থা নিচ্ছে।

স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী বলেন, বিচ্ছিন্নতাবাদীদের দেশের সীমানা এলাকায় থাকতে দেওয়া হচ্ছে না তাদের সরিয়ে দেওয়া হচ্ছে। যেসব বিচ্ছিন্নতাবাদী বা জঙ্গি সংগঠন বাংলাদেশের বিভিন্ন জায়গায় অবস্থান করছে, আমরা তাদের সরিয়ে দিচ্ছি।

প্রশ্নোত্তর পর্বের আগে ফায়ার সার্ভিসের সদর দপ্তরে বিশ্বের সবচেয়ে উঁচু ৬৮ মিটার টিটিএল ল্যাডার উদ্বোধন করেন স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী। এখন থেকে ফায়ার সার্ভিস ২৪তলা পর্যন্ত ভবনের আগুন নেভাতে পারবে।

প্রসঙ্গত, গত দুই বছরে বাড়ি ছাড়া ৫৫ তরুণের সন্ধানে অভিযানে নামে র‍্যাব। পরে জানা যায়, তাদের দুর্গম পাহাড়ে জঙ্গিবাদের প্রশিক্ষণ দেওয়া হচ্ছে। এতে আসে নতুন জঙ্গি সংগঠন জামাতুল আনসার ফিল হিন্দাল শারকিয়ার নাম।

প্রশিক্ষণ নেয়া ৩৮ জনের একটি তালিকাও প্রকাশ করেছে র‍্যাব। পার্বত্য এলাকার কিছু সশস্ত্র সংগঠনের ছত্রছায়ায় তরুণদের জঙ্গিবাদের প্রশিক্ষণ দেওয়া হচ্ছে বলে জানায় বাহিনীটি। এই তথ্যের ভিত্তিতে সপ্তাহ দুয়েক ধরে পাহাড়ে সেনাবাহিনীর নেতৃত্বে চলে বিশেষ অভিযান।