খাগড়াছড়িতে বিজিবির ওপর হামলা করে আসামী ছিনিয়ে নিলো উপজাতিরা, মামলা - Southeast Asia Journal

খাগড়াছড়িতে বিজিবির ওপর হামলা করে আসামী ছিনিয়ে নিলো উপজাতিরা, মামলা

“এখান থেকে শেয়ার করতে পারেন”

Loading

নিউজ ডেস্ক

খাগড়াছড়ির পানছড়িতে প্রসীত বিকাশ খীসার নেতৃত্বাধীন পাহাড়ের আঞ্চলিক সশস্ত্র দল ইউপিডিএফের ইন্ধনে স্থানীয় উপজাতি ও সন্ত্রাসী গোষ্ঠী কর্তৃক বিজিবির কনভয়ে হামলা করে ২জন আসামি এবং জব্দকৃত সাড়ে ১২ লাখ টাকা ছিনিয়ে নিয়ে যাওয়ার ঘটনা ঘটেছে।

গত রবিবার (২৪ সেপ্টেম্বর) বিকেলে জেলার পানছড়ি উপজেলার পূজগাং বাজারে এ ঘটনা ঘটে। এতে উগ্র হামলাকারীদের লাঠির আঘাতে ৯ বিজিবি সদস্য আহত হয়েছেন। আহতরা পানছড়ি উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে চিকিৎসাধীন রয়েছেন। পরে ফাঁকা গুলি চালিয়ে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনে বিজিবি। এ ঘটনায় ঘটনাস্থল থেকে এক সন্ত্রাসীকে আটক করেছে বিজিবি।

রবিবার রাত সাড়ে ১১টায় বিজিবির দেওয়া প্রেস বিজ্ঞপ্তি থেকে জানা যায়, এদিন সকাল ১০টার দিকে পানছড়ি ৩ বিজিবি ব্যাটালিয়নের অধিনস্থ লোগাং বিজিবি ক্যাম্প কর্তৃক একটি বস্তা ও দুইজন যাত্রীসহ রেজিষ্ট্রেশন বিহীন সন্দেহজনক একটি মোটরসাইকেল আটক করা হয়। আটককৃতরা বস্তায় টাকা আছে জানালে, বিজিবি কর্তৃক স্থানীয় লোগাং ইউনিয়ন পরিষদের ২ নং ওয়ার্ড সদস্য পুর্নজীবন চাকমা, ৪ নং ওয়ার্ড সদস্য মো. সাহেব আলী ও ৬ নং ওয়ার্ড সদস্য রিপন চাকমার উপস্থিতিতে বস্তার মুখ খোলে ১২ লাখ ৫০ হাজার টাকা পাওয়া যায়। বস্তায় করে টাকা বহন করা ব্যক্তিদ্বয় টাকার উৎস ও মালিকানা সম্পর্কে সঠিক তথ্য দিতে ব্যর্থ হলে এসময় জনপ্রতিনিধিদের উপস্থিতিতে টাকা ও মোটরসাইকেল জব্দ করে বিজিবি সদস্যরা।

টাকাসহ আটককৃত আসামীদ্বয়
টাকাসহ আটককৃত আসামীদ্বয়

আটকৃতরা হলো পানছড়ি সীমানা পাড়া এলাকার প্রদীপ চাকমার ছেলে রিন্টু চাকমা (২৭) ও একই এলাকার সুমেন্ত চাকমার ছেলে ধনরঞ্জন চাকমা (২৩)। ধারনা করা হচ্ছে, ভারত থেকে অবৈধ পথে গরু পাচার করে আনতেই এসব টাকা ব্যবহার করা হচ্ছিলো। স্থানীয় সূত্রগুলো জানায়, রিংটু ও ধনরঞ্জন চাকমা পানছড়ি সীমান্ত এলাকায় সংঘবদ্ধ হুন্ডি ব্যবসায়ী চক্রের সদস্য।

পরে বিকেল ৪.১০ মিনিটের দিকে আটককৃত ব্যাক্তিদ্বয় এবং জব্দকৃত টাকা ও মোটরসাইকেল নিয়ে থানায় হস্তান্তরের উদ্যেশ্যে লোগাং থেকে বিজিবির একটি কনভয় পানছড়ি থানার উদ্যেশ্যে রওয়ানা দেয়। পথিমধ্যে পূজগাং বাজার এলাকায় কনভয়টি পৌঁছলে ৫০০-৬০০ জনের একটি উপজাতি সন্ত্রাসীদল গাড়ির গতিরোধ করে। আসামি থাকা গাড়িতে হামলা করে দুজন আসামি এবং জব্দকৃত টাকা ছিনিয়ে নিয়ে গাড়িতে পেট্রোল দিয়ে জ্বালিয়ে দিতে উদ্যত হয় তারা। এসময় সন্ত্রাসীদের লাঠির আঘাতে ৯ জন বিজিবি সদস্য আহত হন। আহত বিজিবি সদস্যরা বর্তমানে পানছড়ি উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে চিকিৎসাধীন রয়েছেন।

পরে উত্তপ্ত পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনতে বিজিবি ১৩ রাউন্ড ফাঁকা গুলি ছুড়লে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আসে। বর্তমানে পরিস্থিতি শান্ত রয়েছে।

ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করে পানছড়ি থানার অফিসার ইনচার্জ(ওসি) মো. হারুনুর রশিদ বলেন, ‘পুজগাং এলাকায় বিজিবির কনভয় থামিয়ে আসামিসহ জব্দকৃত টাকা ছিনিয়ে নেওয়ার ঘটনায় আমরা প্রাথমিক সত্যতা পেয়েছি। আমাদের পুলিশের একটি টিম ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেছেন। বিজিবির পক্ষ থেকে আমরা এখনো লিখিত অভিযোগ পাইনি। অভিযোগ পেলে আইনগত ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

এদিকে, বিজিবির ওপর হামলা চালিয়ে টাকাসহ হুন্ডি ব্যবসায়ীকে ছিনিয়ে নেওয়ার ঘটনায় ১৩ জনের নাম উল্লেখ করে ও ৫০০/৬০০ জনকে অজ্ঞাত আসামি করে মামলা করা হয়েছে। সোমবার (২৫ সেপ্টেম্বর) বিজিবির এক সদস্য বাদী হয়ে মামলাটি করেন। বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন পানছড়ি থানার ওসি হারুনুর রশিদ।