এটিএম কার্ড জালিয়াতি করে টাকা তুলে নিলো উপজাতি সিকিউরিটি গার্ড, গোপনে মীমাংসা - Southeast Asia Journal

এটিএম কার্ড জালিয়াতি করে টাকা তুলে নিলো উপজাতি সিকিউরিটি গার্ড, গোপনে মীমাংসা

“এখান থেকে শেয়ার করতে পারেন”

Loading

নিউজ ডেস্ক

পার্বত্য জেলা খাগড়াছড়িতে উত্তরা ব্যাংকের এক গ্রাহকের কার্ড জালিয়াতি করে দেড় লাখ টাকা উত্তোলন করেছে একই ব্যাংকের এটিএম বুথের গার্ড উপজাতি যুবক থোয়াইসা মারমা (২৫)। বিষয়টি জানাজানির পর রোববার (১৪ জানুয়ারি) রাতে খাগড়াছড়ি সদরের কেন্দ্রীয় শাহী জামে মসজিদ সড়কে অবস্থিত ব্যাংকটির শাখায় অতিগোপনীয়তায় বিষয়টি মীমাংসা করা হয়। এ সময় ভুক্তভোগী গ্রাহক সাহানা খানের স্বামী শোয়েব খানও শাখায় উপস্থিত ছিলেন।

জানা যায়, খাগড়াছড়ি পৌর শহরের মিনি সুপার মার্কেটের নিচ তলায় উত্তরা ব্যাংক খাগড়াছড়ি শাখার নিয়ন্ত্রণাধীন এটিএম বুথের গার্ড থোয়াইসা মারমা কার্ড জালিয়াতির মাধ্যমে গ্রাহকের হিসাব নম্বর থেকে পর্যায়ক্রমে দেড় লাখ টাকা উত্তোলন করে।

ভুক্তভোগী সাহানা খান খাগড়াছড়ি পৌর শহরের নিচের বাজার এলাকার বাসিন্দা। তিনি জানান, সকালে উত্তরা ব্যাংকের এটিএম কার্ড দিয়ে ছেলেকে টাকা তুলতে পাঠান। এ সময় পর্যাপ্ত অর্থ না থাকার বার্তা দেখে ছেলে ফিরে আসেন। পরে শাখার মাধ্যমে টাকা তুলতে ব্যাংকের শাখায় গেলেও টাকা না থাকার বিষয়টি নিশ্চিত করা হয়। পরবর্তীতে লেনদেন বিবরণী যাচাই করতে গিয়ে কার্ড জালিয়াতি করে টাকা উত্তোলনের বিষয়টি বেরিয়ে আসে।

এরপর ব্যাংক কর্তৃপক্ষ ও স্বজনরা মিলে এটিএম বুথের গার্ড থোয়াইসা মারমাকে আটক করে জিজ্ঞাসাবাদ করার একপর্যায়ে সে টাকা তোলার বিষয়টি স্বীকার করে। ব্যাংক কর্তৃপক্ষ সাহানা খানকে টাকা ফেরত দেয়ার আশ্বাস দেয়ায় তিনি আইনি কোনো পদক্ষেপ নেননি। আর এ বিষয়ে ব্যাংকের কোনো কর্মকর্তা গণমাধ্যমের সঙ্গে কথা বলতেও রাজি হননি।

খাগড়াছড়ি সদর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) তানভীর হাসান জানান, খবর পেয়ে পুলিশ ব্যাংক কর্তৃপক্ষ ও গ্রাহকের সঙ্গে কথা বলেছে। উভয় পক্ষ বিষয়টি সমঝোতা করায় ভুক্তভোগী গ্রাহক কোনো আইনি পদক্ষেপ নেয়নি।