ভারতের উত্তর-পূর্বাঞ্চলীয় এলাকার শান্তি প্রতিষ্ঠায় বাংলাদেশের প্রচেষ্টা তুলে ধরলেন প্রধানমন্ত্রী

ভারতের উত্তর-পূর্বাঞ্চলীয় এলাকার শান্তি প্রতিষ্ঠায় বাংলাদেশের প্রচেষ্টা তুলে ধরলেন প্রধানমন্ত্রী

ভারতের উত্তর-পূর্বাঞ্চলীয় এলাকার শান্তি প্রতিষ্ঠায় বাংলাদেশের প্রচেষ্টা তুলে ধরলেন প্রধানমন্ত্রী
“এখান থেকে শেয়ার করতে পারেন”

Loading

নিউজ ডেস্ক

প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বলেছেন, আওয়ামী লীগ ক্ষমতায় আসার পর ভারতের উত্তর-পূর্বাঞ্চলীয় রাজ্যগুলোতে শান্তি প্রতিষ্ঠায় বাংলাদেশ হয়ে ভারতে অস্ত্র চোরাচালানের পথ বন্ধ করতে উল্লেখযোগ্য পদক্ষেপ নিয়েছে।

তিনি বলেন, ‘আওয়ামী লীগ ক্ষমতায় এসে বাংলাদেশ দিয়ে অস্ত্র চোরাচালানের পথ বন্ধ করে দিয়েছে।’

আজ শনিবার বঙ্গবাজার নগর পাইকারি বিপণিবিতানের ১০তলা ভবনের নির্মাণ কাজসহ চারটি প্রকল্পের উদ্বোধন অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির ভাষণে এসব কথা বলেন তিনি।

বাকি তিনটি প্রকল্প হলো বীর মুক্তিযোদ্ধা শেখ ফজলুল হক মনি সরণি (৮ লেন সড়ক), হোসেন শহীদ সোহরাওয়ার্দী শিশু উদ্যান ও নজরুল সরোবর।

শেখ হাসিনা বলেন, আওয়ামী লীগ সরকার উলফার মতো ভারতের বিভিন্ন গোষ্ঠীকে চোরাচালান অস্ত্র সরবরাহের সব পথ বন্ধ করে দিয়েছে।

তিনি বলেন, ‘ফলে ভারতের সেভেন সিস্টার্স রাজ্যে শান্তি বিরাজ করছে, আওয়ামী লীগ সেটাই করেছে। আর এটাই সবচেয়ে বড় কাজ।’

ইউনাইটেড লিবারেশন ফ্রন্ট অব আসাম (উলফা) ভারতের উত্তর-পূর্বাঞ্চলীয় রাজ্য আসামে সক্রিয় একটি সশস্ত্র জঙ্গি সংগঠন। যারা আসাম সঙ্ঘাতের সশস্ত্র সংগ্রামের মাধ্যমে আদিবাসী আসাম জনগণের জন্য একটি স্বাধীন সার্বভৌম জাতি রাষ্ট্র প্রতিষ্ঠা করতে চায়। ভারত সরকার ১৯৯০ সালে সংগঠনটিকে সন্ত্রাসী সংগঠন হিসেবে চিহ্নিত করে নিষিদ্ধ ঘোষণা করে।

ভারতের সেভেন সিস্টার রাজ্যগুলো হলো মিজোরাম, আসাম, মণিপুর, মেঘালয়, ত্রিপুরা, অরুণাচল প্রদেশ ও নাগাল্যান্ড।

স্থানীয় সরকার ও পল্লী উন্নয়ন (এলজিআরডি) মন্ত্রী মো: তাজুল ইসলামের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে আরো বক্তব্য রাখেন ঢাকা দক্ষিণ সিটি করপোরেশনের মেয়র ব্যারিস্টার শেখ ফজলে নূর তাপস, স্থানীয় সংসদ সদস্য আ ফ ম বাহাউদ্দিন নাসিম ও এলজিআরডি সচিব মুহাম্মদ ইব্রাহিম।

  • অন্যান্য খবর জানতে এখানে ক্লিক করুন।
  • ফেসবুকে আমাদের ফলো দিয়ে সর্বশেষ সংবাদের সাথে থাকুন।