রাঙামাটির ফুরমোন পাহাড়ে সেনা অভিযানে ইউপিডিএফ সন্ত্রাসী আটক - Southeast Asia Journal

রাঙামাটির ফুরমোন পাহাড়ে সেনা অভিযানে ইউপিডিএফ সন্ত্রাসী আটক

“এখান থেকে শেয়ার করতে পারেন”

Loading

নিউজ ডেস্ক

রাঙামাটি পার্বত্য জেলার ফুরমোন পাহাড়ে আগত পর্যটকদের মোবাইল ছিনতাই ও মারধরের পর অভিযান চালিয়ে এক ইউপিডিএফ সন্ত্রাসীকে আটক করেছে সেনাবাহিনীর সদস্যরা।

আজ রবিবার (১৪ জানুয়ারি) ভোরে ফুরমোন পাহাড়ের টিবিমনপাড়া এলাকা হতে পর্যটকদের কাছ থেকে মোবাইল ছিনতাই ও তাদের মারধরের পরপরই অভিযানে নামে রাঙামাটি জোনের সেনা সদস্যরা।

ভুক্তভোগী পর্যটকদের সাথে কথা বলে ঘটনাস্থলে তাৎক্ষণিক অভিযান চালিয়ে সেনা সদস্যরা সন্দেহভাজন কতিপয় ব্যক্তিকে আটক করতে সমর্থ হয়। এসময় ভুক্তভোগী পর্যটকগণ উক্ত সন্দেহভাজন ব্যক্তিবর্গ হতে মন্টু চাকমা, পিতা: পাইঅংশী চাকমা নামে একজন সন্ত্রাসীকে চিহ্নিত করতে সক্ষম হয়।

পরবর্তীতে প্রয়োজনীয় জিজ্ঞাসাবাদের পর উক্ত ইপিডিএফ সন্ত্রাসীকে কাউখালী থানায় হস্তান্তর করা হয়। এ ঘটনায় মামলা দায়েরের কার্যক্রম চলমান রয়েছে বলে জানা গেছে।

এর আগে, সকালে দেশের বিভিন্ন জেলা থেকে ৩ টি গ্রুপে মোট ১৬ জন পর্যটক (শিক্ষার্থীসহ) ফুরোমন পাহাড় ভ্রমনে আসেন। তাদের মধ্যে প্রথম গ্রুপ ফুরমোন পাহাড়ের হেলিপ্যাড সহ অন্যান্য জায়গায় ঘুরাফেরা শেষ করে নামার সময় ও অন্য ২ গ্রুপ পাহাড়ে উঠার সময় ফুরমোন পাহাড়ের বটগাছের কাছে পৌঁছালে তিন জন অস্ত্রধারী উপজাতি সশস্ত্র সন্ত্রাসী তাদের আটক করে ও ভয় দেখিয়ে প্রত্যেকের কাছে থাকা মোট ১৬টি মোবাইল ফোন নিয়ে যায়। এসময় পাহাড় থেকে দ্রুত পর্যটকেরা পালিয়ে এসে জানমাল রক্ষার্থে সেনাবাহিনীর সহায়তার জন্য মানিকছড়ি সেনা ক্যাম্পে আসেন।

পর্যটকদের ভাষ্যমতে, অস্ত্রধারী উপজাতি সন্ত্রাসীদের একজনের কাছে এসএমজি, একজনের কাছে শর্টগান ছিলো। পর্যটকদের সাথে কথা বলে জানা যায়, পরবর্তীতে তাদের আর ফুরমোন পাহাড়ে উঠতে নিষেধ করে দিয়েছেন উপজাতি অস্ত্রধারী যুবকরা। তার সাথে তারা ফুরমোন পাহাড়কে কোন পর্যটন কেন্দ্র হিসেবে চায় না, পার্বত্য চট্টগ্রামে কোন পর্যটন কেন্দ্র বা স্পট করতে দিবে না তারা বলেও হুঁশিয়ারি দেয়া হয়।

উল্লেখ্য, পাহাড়টি ভ্রমনপিয়াসু পর্যটকগণের কাছে দিন দিন জনপ্রিয় হচ্ছে। দুর্ভাগ্যজনকভাবে কিছু পাহাড়ি সন্ত্রাসীগন পর্যটকগদের এই আগমনের সুযোগ নিয়ে তাদের সর্বস্ব কেড়ে নিচ্ছে বলে নিয়মিত অভিযোগ উঠছে।