বান্দরবানের সব ব্যাংকে লেনদেন স্থগিত - Southeast Asia Journal

বান্দরবানের সব ব্যাংকে লেনদেন স্থগিত

বান্দরবানের সব ব্যাংকে লেনদেন স্থগিত
“এখান থেকে শেয়ার করতে পারেন”

Loading

নিউজ ডেস্ক

নিরাপত্তার কারণে বান্দরবানের সব ব্যাংকের লেনদেন স্থগিত করা হয়েছে। বুধবার দুপুরে ব্যাংকগুলো লেনদেন স্থগিত করে দেয়।

আজ দুপুরে থানচি উপজেলায় সোনালী ও কৃষি ব্যাংকে ডাকাতির চেষ্টা করে নতুন সশস্ত্র গোষ্ঠী কুকি-চিন ন্যাশনাল ফ্রন্ট (কেএনএফ)। এ সময় বাজার ঘেরাও করে কয়েক রাউন্ড ফাঁকা গুলি ছুঁড়ে তারা।এরপর বাজারে বেশ কয়েকজনের মোবাইল ফোন ছিনতাই করে ২৫ থেকে ৩০ জন সদস্যের অস্ত্রধারী দলটি।

থানচি উপজেলার ইউএনও মো. মামুন জানিয়েছেন, সোনালী ব্যাংক থেকে প্রায় ১৫ লাখ টাকা লুট করা হয়েছে। তবে কৃষি ব্যাংক থেকে কত টাকা লুট করা হয়েছে তা জানা যায়নি।

বান্দরবান শাখার সোনালী ব্যাংকের এজিএম মো. ওসমান গণি জানান, কয়েকজন অস্ত্রধারী দুর্বৃত্ত দুপুর সোয়া ১২টার দিকে পুরো থানচি বাজার ঘিরে ফেলে এবং ব্যাংকের সামনে এসে গুলি চালিয়ে ভীতি সৃষ্টি করে চলে যায়।

এদিকে ব্যাংক ডাকাতির ঘটনায় সশস্ত্র গোষ্ঠী কুকি-চিন ন্যাশনাল ফ্রন্টের (কেএনএফ) সম্পৃক্ততা পাওয়া গেছে বলে জানিয়েছেন স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী আসাদুজ্জামান খান কামাল। এসময় তিনি বলেন, ‘প্রয়োজনে সেখানে সেনা মোতায়েন করা হবে।’

আজ রাজধানীর সচিবালয়ে তিনি সাংবাদিকদের এক প্রশ্নের জবাবে তিনি একথা বলেন। মন্ত্রী বলেন, ‘বান্দরবানের রুমা ও থানচিতে ব্যাংক লুটের ঘটনায় যা যা করণীয়, তার সবই করছে সরকার। কী কারণে হঠাৎ করে এটি ঘটলো তা খতিয়ে দেখা হচ্ছে।’

এর আগে গতকাল মঙ্গলবার রাত ৯টার দিকে বান্দরবানের রুমায় কেএনএফ সোনালী ব্যাংকে হামলা চালিয়ে টাকা ও ১৪টি অস্ত্র লুট করেছে বলে খবর পাওয়া যায়। অপহরণ করে নিয়ে যায় ব্যাংকের ম্যানেজারকে।

স্থানীয় সূত্রে জানা যায়, বাজারে বেশ কয়েকজনের মোবাইল ফোন ছিনতাই করে ২৫ থেকে ৩০ জন সদস্যের দলটি।

এদিকে অপহৃত ব্যাংক ম্যানেজার নিজাম উদ্দিনের এখনও কোনো খোঁজ পাওয়া যায়নি। বুধবার সকালে ঘটনাস্থল পরিদর্শনে যান বান্দরবানের জেলা প্রশাসক শাহ মোজাহিদ উদ্দিন।

  • অন্যান্য খবর জানতে এখানে ক্লিক করুন।
  • ফেসবুকে আমাদের ফলো দিয়ে সর্বশেষ সংবাদের সাথে থাকুন।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *