ভারতে অষ্টাদশ লোকসভার প্রথম অধিবেশন আজ, এনডিএ-ইন্ডিয়া জোটের মধ্যে সংঘাতের শঙ্কা

ভারতে অষ্টাদশ লোকসভার প্রথম অধিবেশন আজ, এনডিএ-ইন্ডিয়া জোটের মধ্যে সংঘাতের শঙ্কা

ভারতে অষ্টাদশ লোকসভার প্রথম অধিবেশন আজ, এনডিএ-ইন্ডিয়া জোটের মধ্যে সংঘাতের শঙ্কা
“এখান থেকে শেয়ার করতে পারেন”

Loading

নিউজ ডেস্ক

ভারতে অষ্টাদশ লোকসভার অধিবেশন শুরু হচ্ছে আজ সোমবার। এ দিনই প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদিসহ সাংসদরা শপথ গ্রহণ করতে চলেছেন। প্রোটেম স্পিকার ভর্তৃহরি মাহতাবের তত্ত্বাবধানে হবে সাংসদদের শপথ গ্রহণের অনুষ্ঠান। তবে প্রথম দিনেই এনডিএর সঙ্গে ইন্ডিয়া জোটের সংঘাত হতে পারে বলে আশঙ্কা করা হচ্ছে। কারণ প্রোটেম স্পিকারের নির্বাচন নিয়ে ইতোমধ্যে মোদি সরকারের সমালোচনা শুরু করেছে বিরোধীরা। সোমবার সাংসদদের শপথ গ্রহণের সময় সেই বিরোধিতার আঁচ লাগতে পারে বলে মনে করছেন অনেকেই।

গত ৪ জুন লোকসভার ফল প্রকাশের পর নতুন লোকসভার প্রথম অধিবেশন বসতে যাচ্ছে আজ। বিজেপির নেতৃত্বাধীন এনডিএ জোটের ২৯২ জন, বিরোধী জোট ‘ইন্ডিয়া’র ২৩৩ জন এবং অন্যান্যের ১৮ জন সংসদ সদস্যের শপথ গ্রহণ করার কথা রয়েছে। দু’দিনে এই অনুষ্ঠানকে ভাগ করা হয়েছে। শপথ গ্রহণের প্রক্রিয়া চলবে মঙ্গলবার পর্যন্ত। সোমবার সকাল ১১টা থেকে শপথ গ্রহণ শুরু হবে। প্রথম শপথ নেবেন প্রধানমন্ত্রী মোদি। তাঁকে লোকসভার দলনেতা বলে ঘোষণা করবেন প্রোটেম স্পিকার। তারপর বিভিন্ন রাজ্যের নামের আদ্যাক্ষর অনুযায়ী সাংসদদের নাম ডাকা হবে। এ ক্ষেত্রে আসামের সাংসদরা প্রথমেই সুযোগ পাবেন। পশ্চিমবঙ্গের ডাক আসবে সব শেষে।

লোকসভার অধিবেশন শুরুর আগে রাষ্ট্রপতি ভবনে রাষ্ট্রপতি দ্রৌপদী মুর্মুর তত্ত্বাবধানে প্রোটেম স্পিকার হিসেবে শপথ নেবেন উড়িষ্যার কটকের সাতবারের সাংসদ ভর্তৃহরি। পরে তিনি সংসদে পৌঁছে সাংসদদের শপথ গ্রহণের অনুষ্ঠান শুরু করবেন। এ কাজে প্রোটেম স্পিকারকে সাহায্য করার জন্য বিরোধী দলের নেতাদের নিযুক্ত করেছেন রাষ্ট্রপতি।

প্রোটেম স্পিকারের প্যানেলে রাখা হয়েছে কংগ্রেসের কে সুরেশ, তৃণমূলের সুদীপ বন্দ্যোপাধ্যায় এবং ডিএমকে-র টি আর বালুকে। কিন্তু বিরোধীরা এই দায়িত্ব গ্রহণ করছেন না বলে জানা গেছে। সে ক্ষেত্রে প্রোটেম স্পিকারের প্যানেলে শুধু বিজেপির রাধামোহন সিংহ ও ফাল্গুন সিংহ কুলস্তে থাকবেন। সাংসদদের শপথ নেওয়া হয়ে গেলে আগামী ২৬ জুন লোকসভার স্পিকার নির্বাচন হবে। ২৭ জুন লোকসভা এবং রাজ্যসভার যৌথ অধিবেশনে ভাষণ দেবেন রাষ্ট্রপতি। আগামী ২ বা ৩ জুলাই সংসদের বিতর্কে অংশ নিতে পারেন প্রধানমন্ত্রী। প্রোটেম স্পিকারের দায়িত্ব সাধারণত লোকসভার সবচেয়ে অভিজ্ঞ সাংসদকে দেওয়া হয়।

সেদিক থেকে মনে করা হয়েছিল, এবার এই দায়িত্ব পাবেন কংগ্রেসের আটবারের সাংসদ কে সুরেশ। কিন্তু তাঁর পরিবর্তে সাতবারের সাংসদ ভর্তৃহরিকে এই দায়িত্ব দেওয়ায় শুরু হয় বিতর্ক। কংগ্রেসের অভিযোগ, দলিত বলে সুরেশকে প্রোটেম স্পিকার করা হয়নি।

সংসদবিষয়ক মন্ত্রী কিরেন রিজিজু এ নিয়ে যুক্তি দেন, সুরেশ টানা আটবারের সাংসদ নন। মাঝে দু’বছর তিনি ভোটে হেরেছিলেন। কিন্তু ভর্তৃহরি টানা সাত বছর ধরে সাংসদ পদে রয়েছেন। প্রোটেম স্পিকারের ইস্যুকে হাতিয়ার করে বিরোধী শিবির লোকসভার অধিবেশনের প্রথম দিন থেকেই সংঘাতের পথে যেতে পারে। খবর এনডিটিভির।

  • অন্যান্য খবর জানতে এখানে ক্লিক করুন।
  • ফেসবুকে আমাদের ফলো দিয়ে সর্বশেষ সংবাদের সাথে থাকুন।