রাঙামাটিতে তুচ্ছ ঘটনাকে কেন্দ্র করে হঠাৎ গণপরিবহন বন্ধ - Southeast Asia Journal

রাঙামাটিতে তুচ্ছ ঘটনাকে কেন্দ্র করে হঠাৎ গণপরিবহন বন্ধ

“এখান থেকে শেয়ার করতে পারেন”

Loading

নিউজ ডেস্ক

রাঙামাটির একমাত্র অভ্যন্তরীণ গণপরিবহন সিএনজিচালিত অটোরিকশা।

বুধবার (১৯ জুলাই) দুপুর আড়াইটার দিকে হঠাৎ অটোরিকশা শ্রমিকদের আন্দোলনে বন্ধ করে দেওয়া হয় এই গণপরিবহন।

জানা যায়, তুচ্ছ একটি ঘটনায় বাকবিতণ্ডাকে কেন্দ্র করে হওয়া মামলায় রাঙামাটি সিএনজি-অটোরিকশা সমিতির লাইনম্যান নয়নকে আটক করে পুলিশ। পরে তাকে আজ বুধবার আদালতে পাঠানো হলে জামিন নামঞ্জুর করে জেলহাজতে প্রেরণ করেন বিচারক। এ ঘটনায় দুপুর আড়াইটার দিকে হঠাৎ অটোরিকশা বন্ধ করে দেন শ্রমিকরা। শহরের একমাত্র অভ্যন্তরীণ পরিবহন হওয়ায় ভোগান্তিতে পড়েন রাঙামাটির সাধারণ যাত্রীরা।

স্থানীয় যুবক সায়ন্তনু চাকমা ঢাকা পোস্টকে বলেন, ‘আমি ব্যাংকে একটি কাজে এসেছি, কাজ শেষ করে ফেরার পথে হঠাৎ শুনি অটোরিকশা বন্ধ। এখন বাসায় কেমনে যাব। সিএনজি রাঙ্গামাটির একমাত্র অভ্যন্তরীণ পরিবহন হওয়ায় তারা যেমন খুশি তেমন করেন। মনমতো ভাড়া নেন এবং মনে চাইলেই গাড়ি বন্ধ করে দেন।’

দশম শ্রেণির ছাত্রী বীনা দাশ ঢাকা পোস্টকে বলে, আমি প্রাইভেট পড়ার জন্য বের হয়েছি। বিকেল ৩টা থেকে প্রাইভেট ছিল। সামনে পরীক্ষা কিন্তু প্রাইভেটে যেতে পারলাম না।

রাঙামাটি অটোরিকশা মালিক-শ্রমিক সমিতির সভাপতি পরেশ মজুমদার বলেন, আমাদের লাইনম্যান নয়নকে মিথ্যা মামলা দেওয়া হয়েছে। এক যাত্রীর সঙ্গে বাকবিতণ্ডাকে কেন্দ্র করে তার বিরুদ্ধে মামলা হয় এবং যিনি মামলা করেন তিনি আদালতের এক পেশকারের ভাই বলে জেনেছি। তারা মিথ্যা অপরাধে আমাদের লাইনম্যানকে জামিন নামঞ্জুর করেছে। তাই শ্রমিকরা ক্ষিপ্ত হয়ে অটোরিকশা বন্ধ করেছে। আমরা কথা বলছি। প্রশাসনের আশ্বাস পেলে পুনরায় গাড়ি চলাচল করবে।

এ বিষয়ে রাঙামাটির পুলিশ সুপার মীর আবু তৌহিদ বলেন, একটি মামলা সংক্রান্ত ঘটনাকে কেন্দ্র করে অটোরিকশা শ্রমিকরা পরিবহন ধর্মঘট করছে। আইনশৃঙ্খলা রক্ষায় আমরা সতর্ক রয়েছি। আইনের প্রতি সবার শ্রদ্ধাশীল হওয়া উচিত।