সড়ক দুর্ঘটনা এড়াতে মোটরসাইকেলে করে বগালেক-কেওক্রাডং ভ্রমণে নিষেধাজ্ঞা - Southeast Asia Journal

সড়ক দুর্ঘটনা এড়াতে মোটরসাইকেলে করে বগালেক-কেওক্রাডং ভ্রমণে নিষেধাজ্ঞা

“এখান থেকে শেয়ার করতে পারেন”

Loading

নিউজ ডেস্ক

বান্দরবানের রুমা উপজেলার আকর্ষণীয় পর্যটন স্পট বগালেক ও কেওক্রাডংয়ে মোটরসাইকেলে করে পর্যটকদের যেতে নিষেধাজ্ঞা আরোপ করেছে উপজেলা প্রশাসন। সড়ক দুর্ঘটনা এড়াতে ও উক্ত সড়কে নির্মাণকাজ চলমান থাকায় উপজেলার মাসিক আইনশৃঙ্খলা সভায় এ সিদ্ধান্ত নেয়া হয়েছে।

বুধবার দুপুরে রুমা উপজেলা পরিষদ মিলনায়তনে এক সভায় এই সিদ্ধান্ত গ্রহণ করা হয়।

রুমার বগালেক-কেওক্রাডং সড়কে পর্যটকদের মোটরসাইকেলে যাতায়াতের বিষয়টি উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা সৈয়দ মাহবুবুল হককে উপস্থাপন করা হলে আইনশৃঙ্খলা সভায় উপস্থিত সবাই বিভিন্ন মতামত উপস্থাপন করেন। সভায় পরে তা নিয়ে বিস্তারিত আলোচনা করা হয়।

সভায় বলা হয়, কেওক্রাডং সড়কে রাস্তাঘাট নির্মাণ ও ব্রিজ নির্মাণকাজ চলমান থাকায় মোটরসাইকেলে চলাচল বিপদজনক এবং বড় দুর্ঘটনার আশঙ্কা থাকে। সড়ক নির্মাণের কাজ চলমান অবস্থায় পর্যটকদের মোটরসাইকেলে যাতায়াত নিরুৎসাহিত করতে সংশ্লিষ্ট সবার প্রতি অনুরোধ করা হয়। তাই রুমা উপজেলায় আগত পর্যটকরা মোটরসাইকেলে করে বগালেক ও কেওক্রাডং যাওয়া যাবে না মর্মে সিদ্ধান্ত গৃহীত হয়।

উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা সৈয়দ মাহবুবুল হকের সভাপতিত্বে এতে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন, উপজেলা চেয়ারম্যান উহ্লাচিং মারমা। বিশেষ অতিথি ও অন্যান্যের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন, উপজেলা মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান নুম্রাউ মারমা, উপজেলা ভাইস চেয়ারম্যান থাংখামলিয়ান বম, উপজেলা সহকারী কমিনার মোহাম্মদ দিদারুল আলম, উপজেলা শিক্ষা কর্মকর্তা আশীষ চিরান, উপজেলা পিআইও শাহারিয়ার মাহমুদ রন্জু, উপজেলা প্রকৌশলী মোহাম্মদ সাইফুল ইসলাম, পাইন্দু ইউপি চেয়ারম্যান উহ্লামং মারমা, গালেঙ্গ্যা ইউপি চেয়ারম্যান মেনরত ম্রো, উপজেলা সহকারী জনস্বাস্থ্য প্রকৌশলী স্বপন চাকমা, রুমা থানার ওসির প্রতিনিধি, বিজিবি প্রতিনিধি ও বিভিন্ন দফতরের প্রতিনিধিরা।

প্রসঙ্গত, তবে পর্যটকরা যে কোনো প্রান্ত থেকে অর্থাৎ জেলা সদর বান্দরবান থেকে মোটরসাইকেলে করে রুমা উপজেলা সদরে আসতে পারবেন।