সিলেটে টিলা ধ্বসে একই পরিবারের স্বামী-স্ত্রী ও শিশু সন্তানের করুণ মৃত্যু, লাশ উদ্ধার করলো সেনাবাহিনী

সিলেটে টিলা ধ্বসে একই পরিবারের স্বামী-স্ত্রী ও শিশু সন্তানের করুণ মৃত্যু, লাশ উদ্ধার করলো সেনাবাহিনী

সিলেটে টিলা ধ্বসে একই পরিবারের স্বামী-স্ত্রী ও শিশু সন্তানের করুণ মৃত্যু, লাশ উদ্ধার করলো সেনাবাহিনী
“এখান থেকে শেয়ার করতে পারেন”

Loading

নিউজ ডেস্ক

টিলার মাটি ধসে সিলেট মহানগরের ৩৫নং ওয়ার্ডের মেজরটিলার চামেলীভাগ আবাসিক এলাকায় চাপা পড়ে থাকা ৩ জনের লাশ উদ্ধার করেছে সেনাবাহিনীর উদ্ধার কারী দল। তিনজনই একই পরিবারের স্বামী-স্ত্রী ও শিশু পূত্র। নিহতরা হচ্ছেন আগা করিম উদ্দিন (৩১), স্ত্রী শাম্মী আক্তার রুজি (২৫) ও পূত্র নাফজি তানিম (৬)।

উদ্ধারের বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন এসএমপি’র শাহপরাণ থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) মোহাম্মদ হারুনুর রশীদ চৌধুরী বলেন, তিন জনের লাশ উদ্ধার করে ময়না তদন্তের জন্য ওসমানী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে প্রেরণ করা হয়েছে।

আজ সোমবার (১০ জুন) ভোর ৬টায় চামেলীভাগ এলাকার ২ নং রোডের ৮৯ নং বাসাটি টিলা মাটির নিচে বিকট শব্দে চাপা পড়ে। আগা করিম ওই এলাকার মৃত আলা উদ্দিনের পূত্র। দুর্ঘটনায় মাটি চাপা পড়েছিলেন একই পরিবরের মোট ৯ জন। ৩ জন ছাড়া বাকিদের উদ্ধার করা গেছে। তাদের মধ্যে ৩ জন আহত। তাদের সিলেট এমএজি ওসমানী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। দুপুর ১২টা পর্যন্তও বিভিন্ন প্রতিবন্ধকতার কারণে আটকা পড়াদের উদ্ধার করা সম্ভব হয়নি।

শুরু থেকে ফায়ার সার্ভিস, পুলিশ ও স্থানীয় জনতা উদ্ধার তৎপরতা চালাচ্ছিলেন। সাড়ে ১১টার দিকে এ কার্যক্রমে অংশ নেয় সেনাবাহিনীর ৩টি টিম।

সিসিকের ৩৫ নং ওয়ার্ড কাউন্সিলর মো. জাহাঙ্গীর আলম বলেন- ঘরটি টিলার নিচেই ছিলো। ভারী বৃষ্টিতে মাটি গলে ভোর ৬টার দিকে বিকট শব্দে টিলা ধড়ে পড়ে। এই বাসায় দুই ভাই তাদের মা ও স্ত্রী-সন্তানদের নিয়ে থাকতেন। ভূমি ধসে ঘরের নিচে ৯ জন আটকা পড়েছিলেন। পুলিশ, ফায়ার সার্ভিস ও আমরা এসে ৬ জনকে জীবিত অবস্থায় উদ্ধার করতে পেরেছি। রাস্তা ছোট হওয়ার কারণে ফায়ার সার্ভিস ও সিটি করপোরেশনের গাড়ি ঢুকতে পারছে না। ফলে প্রয়োজনীয় যন্ত্রপাতিও ব্যবহার করা যাচ্ছে না। তাই হাত দিয়েই উদ্ধার কার্যক্রম চালানো হচ্ছে।

এছাড়া টানা বৃষ্টির কারনে উদ্ধার কাজে বিঘ্ন ঘটো। এদিকে, যুক্তরাজ্য সফর শেষে আজ সকালে সিলেট এসে পৌছেছেন সিলেট সিটি করপোরেশনের (সিসিক) মেয়র আনোয়ারুজ্জামান চৌধুরী। একটি ফ্লাইটে লন্ডন থেকে সকাল সাড়ে ৯টার দিকে সিলেট ওসমানী আন্তর্জাতিক বিমানবন্দরে এসে পৌছেন। পরে এয়ারপোর্ট থেকে সরাসরি সিসিক মেয়র ঘটনাস্থলে ছুটে যান।

  • অন্যান্য খবর জানতে এখানে ক্লিক করুন।
  • ফেসবুকে আমাদের ফলো দিয়ে সর্বশেষ সংবাদের সাথে থাকুন।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *