একবিংশ শতাব্দীর চ্যালেঞ্জ মোকাবেলায় প্রস্তুত থাকার আহবান সেনাপ্রধানের - Southeast Asia Journal

একবিংশ শতাব্দীর চ্যালেঞ্জ মোকাবেলায় প্রস্তুত থাকার আহবান সেনাপ্রধানের

“এখান থেকে শেয়ার করতে পারেন”

Loading

নিউজ ডেস্ক

সেনাবাহিনী প্রধান জেনারেল এস এম শফিউদ্দিন আহমেদ আর্মি সার্ভিস কোরের গৌরবোজ্জ্বল ঐতিহ্য, যুদ্ধ ও শান্তিকালীন নিরবিচ্ছিন্নভাবে রসদ ও পিওএল সরবরাহ এবং যানবাহন সহায়তা প্রদানের মত গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকার কথা স্মরণ করেছেন।

সোমবার (৬ নভেম্বর) সকালে খুলনাস্থ জাহানাবাদ সেনানিবাসের আর্মি সার্ভিস কোর সেন্টার এন্ড স্কুলে সম্মেলন অনুষ্ঠিত হয়। এর আগে সেনাবাহিনী প্রধান অনুষ্ঠানের স্থলে পৌঁছালে তাকে স্বাগত জানান আর্মি সার্ভিস কোরের নবনিযুক্ত কর্নেল কমান্ড্যান্ট, জেনারেল অফিসার কমান্ডিং আর্মি ট্রেনিং এন্ড ডকট্রিন কমান্ড এবং জেনারেল অফিসার কমান্ডিং ৫৫ পদাতিক ডিভিশন ও এরিয়া কমান্ডার যশোর এরিয়া।

এ সময় আর্মি প্যারেড গ্রাউন্ডে আর্মি সার্ভিস কোরের একদল চৌকস সেনাসদস্য কোর পুনর্মিলনী কুচকাওয়াজ প্রদর্শন করেন। এছাড়াও তিনি আধুনিক ও যুগোপযোগী প্রশিক্ষণের মাধ্যমে একবিংশ শতাব্দীর চ্যালেঞ্জ মোকাবেলায় সদা প্রস্তুত থাকতে এই কোরের সকল সদস্যের প্রতি আহ্বান জানিয়েছেন।

বাংলাদেশ সেনাবাহিনীর আর্মি সার্ভিস কোরের ৬ষ্ঠ কোর পুনর্মিলনী ও ৪২তম বাৎসরিক অধিনায়ক সম্মেলন-২০২৩ উপলক্ষে তিনি এসব কথা বলেন।
এ সময় সেনা প্রধান এ কোরের উন্নয়ন, পেশাগত দক্ষতা বৃদ্ধি ও দেশে-বিদেশে পরিচালিত বিভিন্ন কার্যক্রম বিষয়ে মতবিনিময় করেন।

বক্তব্যের শুরুতেই তিনি স্বাধীনতার মহান স্থপতি এবং সর্বকালের সর্বশ্রেষ্ঠ বাঙালি জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান এর প্রতি গভীর শ্রদ্ধা নিবেদন করেন। একই সাথে তিনি স্মরণ করেন মহান স্বাধীনতা যুদ্ধে আত্মোৎসর্গকারী আর্মি সার্ভিস কোরের বীর সেনানীসহ সকল বীর মুক্তিযোদ্ধাদের।

এছাড়াও সেনাবাহিনী প্রধান জাহানাবাদ সেনানিবাসে ৫০ শয্যা বিশিষ্ট একটি সম্মিলিত সামরিক হাসপাতালের ভিত্তি প্রস্তর স্থাপন করেন। অনুষ্ঠানে ঊর্ধ্বতন সামরিক কর্মকর্তাবৃন্দ, অন্যান্য অফিসার, জুনিয়র কমিশন্ড অফিসার, অন্যান্য পদবির সেনাসদস্য এবং গণমাধ্যম ব্যক্তিবর্গ উপস্থিত ছিলেন।

উল্লেখ্য, গত ৫ নভেম্বর আর্মি সার্ভিস কোরের ৭ম ‘কর্নেল কমান্ড্যান্ট’ হিসেবে অভিষিক্ত হন সশস্ত্র বাহিনী বিভাগের প্রিন্সিপাল স্টাফ অফিসার লেফটেন্যান্ট জেনারেল ওয়াকার-উজ-জামান।