ইউজিসির এপিএ মূল্যায়ন: ২৬ ধাপ এগিয়ে ৩য় অবস্থানে বাংলাদেশ ইউনিভার্সিটি অব প্রফেশনালস - Southeast Asia Journal

ইউজিসির এপিএ মূল্যায়ন: ২৬ ধাপ এগিয়ে ৩য় অবস্থানে বাংলাদেশ ইউনিভার্সিটি অব প্রফেশনালস

“এখান থেকে শেয়ার করতে পারেন”

Loading

নিউজ ডেস্ক

বিশ্ববিদ্যালয় মঞ্জুরি কমিশনের (ইউজিসি) বার্ষিক কর্মসম্পাদন চুক্তির (এপিএ) মূল্যায়নে সবচেয়ে বেশি ধাপ আগানোর দিক দিয়ে প্রথম অবস্থানে রয়েছে খুলনা কৃষি বিশ্ববিদ্যালয়। খুকৃবি আগের ৪৩তম অবস্থান থেকে সবোচ্চ ৩৭ ধাপ এগিয়ে বর্তমানে ৬ষ্ঠ স্থানে অবস্থান করছে। অন্যদিকে সবচেয়ে বেশি ধাপ পিছিয়েছে বাংলাদেশ কৃষি বিশ্ববিদ্যালয়। বাকৃবি তার আগের ৩য় স্থান থেকে সর্বোচ্চ ৪৩ ধাপ পিছিয়ে বর্তমানে সবার শেষে ৪৬তম স্থানে অবস্থান করছে।

গত শনিবার (০১ অক্টোবর) ইউজিসির সচিব ড. ফেরদৌস জামান স্বাক্ষরিত একটি প্রতিবেদনে এসব সব তথ্য জানা যায়। প্রতিষ্ঠানটি দেশের ৪৬টি পাবলিক বিশ্ববিদ্যালয়ের ২০২১-২২ অর্থবছরের এপিএ মূল্যায়নের ফলাফল প্রকাশ করেছে। এতে সবোচ্চ ৯৯.৪৭ স্কোর নিয়ে প্রথম হয়েছে গাজীপুরের বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান কৃষি বিশ্ববিদ্যালয়।

ফলাফলের তথ্য অনুযায়ী, ১০০ নম্বরের মধ্যে ৯৯ দশমিক ৪৭ পেয়ে প্রথম হয়েছে বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান কৃষি বিশ্ববিদ্যালয়। দ্বিতীয় অবস্থানে থাকা ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রাপ্ত নম্বর ৯৪ দশমিক ৪৮। ফলাফলের দিক থেকে তৃতীয় অবস্থানে রয়েছে জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয়। জবির প্রাপ্ত নম্বর ৯৩ দশমিক ৭৫।

ইউজিসির প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, সবচেয়ে বেশি ধাপ আগানোর দিক দিয়ে খুলনা কৃষি বিশ্ববিদ্যালয়ের পরে ২৮ ধাপ এগিয়ে দ্বিতীয় অবস্থানে রয়েছে চট্টগ্রাম মেডিকেল বিশ্ববিদ্যালয়, ২৬ ধাপ এগিয়ে তৃতীয় অবস্থানে বাংলাদেশ ইউনিভার্সিটি অব প্রফেশনাসল, ২১ ধাপ এগিয়ে চতুর্থ অবস্থানে বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান মেরিটাইম ইউনিভার্সিটি এবং ২০ ধাপ এগিয়ে ৫ম অবস্থানে রয়েছে জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয়।

অন্যদিকে সবচেয়ে বেশি ধাপ পেছানোর দিক দিয়ে বাংলাদেশ কৃষি বিশ্ববিদ্যালয়ের পরে ৪২ ধাপ পিছেয়ে দ্বিতীয় অবস্থানে রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়, ৩৮ ধাপ পিছিয়ে তৃতীয় অবস্থানে ইসলামী বিশ্ববিদ্যালয় এবং সমান সমান ২৮ ধাপ পিছিয়ে ৪র্থ ও ৫ম অবস্থান রয়েছে যথাক্রমে জাহাঙ্গীরনগর বিশ্ববিদ্যালয় ও শাহজালাল বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়।

জানা যায়, মোট ছয়টি বিষয়ে ১০০ নম্বরের ভিত্তিতে এই তালিকা প্রস্তুত করা হয়েছে। এর মধ্যে কৌশলগত উদ্দেশ্যসমূহের ক্ষেত্রে ৭০ নম্বর, জাতীয় শুদ্ধাচার কৌশল কর্মপরিকল্পনার ক্ষেত্রে ১০, ই-গভর্ন্যান্স/উদ্ভাবন পরিকল্পনায় ১০, অভিযোগ প্রতিকার ব্যবস্থাপনা পরিকল্পনায় ৪, সেবা প্রদান প্রতিশ্রুতি কর্মপরিকল্পনায় ৩ এবং তথ্য অধিকার কর্ম পরিকল্পনায় ৩ নম্বর ধরা হয়েছে।

ফলাফলের তথ্য (নম্বর) অনুযায়ী, ১০০ নম্বরের মধ্যে ৯৯ দশমিক ৪৭ পেয়ে প্রথম হয়েছে বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান কৃষি বিশ্ববিদ্যালয় প্রথম হয়েছে। দ্বিতীয় অবস্থানে থাকা ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রাপ্ত নম্বর ৯৪ দশমিক ৪৮। ফলাফলের দিক থেকে তৃতীয় অবস্থানে রয়েছে জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয়। জবির প্রাপ্ত নম্বর ৯৩ দশমিক ৭৫। ৯০ দশমিক ৪৯ নম্বর নিয়ে তালিকায় চতুর্থ অবস্থানে রয়েছে বাংলাদেশ উন্মুক্ত বিশ্ববিদ্যালয়। পঞ্চম অবস্থানে থাকা বাংলাদেশ ইউনিভার্সিটি অব প্রফেশনালস এর প্রাপ্ত নম্বর ৮৯ দশমিক ২২।

ষষ্ঠ অবস্থানে রয়েছে খুলনা কৃষি বিশ্ববিদ্যালয়। তাদের প্রাপ্ত নম্বর ৮৮ দশমিক ৯৫। ৮৭ দশমিক ৬৭ নম্বর নিয়ে সপ্তম অবস্থানে রয়েছে চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয়। তালিকায় ৮ম অবস্থানে রয়েছে ঢাকা প্রকৌশল ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়। নবম অবস্থানে রয়েছে যশোর বিজ্ঞান প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয় এবং দশ অবস্থানে রয়েছে চট্টগ্রাম মেডিকেল বিশ্ববিদ্যালয়।

ইউজিসির প্রতিবেদন অনুযায়ী, সাধারণ বিশ্ববিদ্যালয়গুলোর মধ্যে সবচেয়ে বেশি ৪২ ধাপ পিছিয়ে ৪৪তম অবস্থানে রয়েছে রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়। কৃষি বিশ্ববিদ্যালয়গুলোর মধ্যে সবচেয়ে বেশি ৪৩ ধাপ পিছিয়ে ৪৬তম অবস্থানে বাংলাদেশ কৃষি বিশ্ববিদ্যালয়। বিজ্ঞান প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়গুলোর মধ্যে সবচেয়ে বেশি ২৮ ধাপ পিছিয়ে ৩৬তম অবস্থানে রয়েছে শাহজালাল বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়। মেডিকেল বিশ্ববিদ্যালয়গুলোর মধ্যে সবচেয়ে বেশি ২৫ ধাপ পিছিয়ে ৩৭তম অবস্থানে রয়েছে বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান মেডিকেল বিশ্ববিদ্যালয়।

বিপরীতে মেডিকেলে সবচেয়ে বেশি ২৮ ধাপ এগিয়ে ১০ম অবস্থানে চট্টগ্রাম মেডিকেল বিশ্ববিদ্যালয়। সাধারণ বিশ্ববিদ্যালয়গুলোর মধ্যে সবচেয়ে বেশি ২৬ ধাপ এগিয়ে বর্তমানে ৫ম অবস্থানে বাংলাদেশ ইউনিভার্সিটি অব প্রফেশনালস। বিজ্ঞান ও প্রযুক্তিতে সবচেয়ে বেশি ১৯ ধাপ এগিয়ে বর্তমানে ৯ম অবস্থানে যশোর বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়। আর কৃষিতে সবচেয়ে বেশি ৩৭ ধাপ এগিয়ে ৬ষ্ঠ অবস্থানে খুলনা কৃষি বিশ্ববিদ্যালয়।

৯০ দশমিক ৪৯ নম্বর নিয়ে তালিকায় চতুর্থ অবস্থানে রয়েছে বাংলাদেশ উন্মুক্ত বিশ্ববিদ্যালয়। পঞ্চম অবস্থানে থাকা বাংলাদেশ ইউনিভার্সিটি অব প্রফেশনালস এর প্রাপ্ত নম্বর ৮৯ দশমিক ২২। ষষ্ঠ অবস্থানে রয়েছে খুলনা কৃষি বিশ্ববিদ্যালয়। তাদের প্রাপ্ত নম্বর ৮৮ দশমিক ৯৫। ৮৭ দশমিক ৬৭ নম্বর নিয়ে সপ্তম অবস্থানে রয়েছে চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয়। তালিকায় ৮ম অবস্থানে রয়েছে ঢাকা প্রকৌশল ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়। নবম অবস্থানে রয়েছে যশোর বিজ্ঞান প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয় এবং দশ অবস্থানে রয়েছে চট্টগ্রাম মেডিকেল বিশ্ববিদ্যালয়।

ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য অধ্যাপক মো. আখতারুজ্জামান বলেন, উচ্চশিক্ষায় ইউজিসির বার্ষিক কর্মসম্পাদন চুক্তির এ ধরনের মূল্যায়ন অত্যান্ত গুরুত্বপূর্ণ। আগে থেকেই বিশ্ববিদ্যালয়গুলোর বিভিন্ন ক্যাটাগরিতে টার্গেট দেয়া থাকে। নির্দিষ্ট সময়ের মধ্যে যদি বিশ্ববিদ্যালয়গুলো তাদের নিজস্ব টার্গেট ফুলফিল করতে পারে;দ তাহলেই এপিএতে ভালো স্কোর করবে। তবে দেশের কোন বিশ্ববিদ্যালয়ই খারাপ নয়, যে যার জায়গা থেকে সেরা।